Menu
 
       
বাংলাদেশ

স্বামী ও তিন প্রতিবন্ধী মেয়ে নিয়ে চরম কষ্টে দিন কাটছে আন্না রাণীর


 
স্বামী ও তিন প্রতিবন্ধী মেয়ে নিয়ে চরম কষ্টে দিন কাটছে আন্না রাণীর  30420 
 

দেলদুয়ার: টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামে একই পরিবারের বাবা ও তার তিন মেয়েসহ চার জন প্রতিবন্ধী। তাদের তিন মেয়ের কারো ভাগ্যেই জোটেনি প্রতিবন্ধী ভাতা। চরম কষ্টে কাটছে তাদের দিন। সরকারের হতদরিদ্রদের তালিকায়ও তাদের নাম নেই। তাই কোন সুযোগ-সুবিধা পায়না পরিবারটি।
পরিবারটির কর্তাব্যক্তি গোপাল চন্দ্র সূত্রধর জন্মগত ভাবেই শারীরিক প্রতিবন্ধী। বিয়ে করেছেন ১৩/১৪ বছর আগে বাসাইল উপজেলার আইসড়া গ্রামে। স্ত্রী আন্ন্ রাণী সূত্রধর। তিনি ¯^াভাবিক সুস্থ জীবন যাপন করছেন। গোপাল চন্দ্র সূত্রধর ও তার তিন মেয়ে শুধু বেটেই নন দু’হাত ও দু’পা বাঁকা। প্রথম সন্তান রাত্রী সূত্রধর। সে এম এ করিম উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭ম শ্রেণীতে পড়ে। গোপাল ও আন্না রাণীর ঘরে দ্বিতীয়বারও আসে জমজ দুই প্রতিবন্ধী মেয়ে। রিনা ও বীনা সূত্রধর। বর্তমানে তাদের বয়স ৭ বছর। দুই বোনই ছিলিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শেণীতে পড়ে। গোপাল চন্দ্র পারিবারিকভাবে কাঠ মিস্ত্রি। বেটে ও হাত পা বাঁকা হওয়ার কারণে ভারী কাজ করতে পারেন না। তাই কেউ তাকে কাজেও নেয় না। পিঁড়ি, টুল ও ছোট খাটো আসবাবপত্র তৈরি করে যে আয় করে তা দিয়ে সংসার চলে না। স্ত্রী অন্যের বাড়িতে কাজ করে ¯^ামীকে সহযোগিতা করার চেষ্ট করেন। এভাবেই সন্তানদের নিয়ে জীবন যুদ্ধে বাঁচার চেষ্টা করে যাচ্ছেন গোপাল ও আন্না রাণী। আন্না রাণী সূত্রধর বলেন, আমরা খুব কষ্টে আছি। বড় মেয়ে রাত্রী লেখাপড়ার পাশাপাশি বাঁশ দিয়ে তালাইয়ের চাটাই বানিয়ে পরিবারকে সহযোগিতা করে।

খালিদ হোসেন ছিদ্দিকী
দেলদুয়ার (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

 

 


71 নিউজ টিভি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।



71 নিউজ টিভি সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

 

Banner 2